সাংবাদিক কাজল ৫৪ ধারায় কারাগারে

প্রকাশিত: ৮:৩৯ অপরাহ্ন, মে ৩, ২০২০

নিখোঁজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলায় আদালত জামিন দিয়েছেন। তবে ৫৪ ধারার নতুন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আজ রবিবার দুপুর ৩টার দিকে তাকে যশোর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে আনা হয়। বিকেল ৫টার দিকে শুনানিশেষে বিচারক তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তাকে আদালতে আনার সময় তার ছেলে মনোরম পলকসহ কয়েকজন স্বজন আদালত প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে ১৯৭৩ সালের পাসপোর্ট আদেশের ১১/৩ ধারায় অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগ আনা হয়েছে।

কাজলকে বিকেল পৌনে ৩টার দিকে একটি থ্রিহুইলারে করে পুলিশ সদস্যরা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আনেন। এ সময় তার হাত পিঠমোড়া দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরানো ছিল। কাজলের মুখভর্তি ছিল সাদা দাড়ি। পরনে ছিল ফুল হাতা গেঞ্জি ও খাকি রঙের প্যান্ট। পায়ে ছিল দুই ফিতের চটি স্যান্ডেল। থ্রিহুইলার থেকে নামানোর পর কাজলকে তার ছেলে পলক জড়িয়ে ধরে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন।

কাজলের আইনজীবী দেবাশীষ দাসের সহকারী সুদিপ্ত ঘোষ জানান, বিকেল ৫টার দিকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলামের আদালতে হাজির করলে বিচারক শুনানিশেষে অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলায় তাঁকে জামিন দেন। তবে তাঁর বিরুদ্ধে ঢাকার শেরেবাংলা, কামরাঙ্গীরচর ও হাজারীবাগ থানায় আইসিটি অ্যাক্টের মামলা থাকায় কোতোয়ালি থানা পুলিশ আটকাদেশ পেতে নতুন করে ৫৪ ধারায় মামলা দিয়ে গ্রেপ্তারের আবেদন জানান। পরে বিচারক এ মামলায় তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কাজলের ছেলে মনোরম পলক প্রতিক্রিয়ায় জানান, তার একটি মামলায় জামিন হয়েছে। পাশাপাশি তার বাবার খোঁজখবর রাখার জন্য সকলকে অনুরোধ এবং তিনি বেঁচে থাকায় শুকরিয়া জানান।