কাটুক আঁধার রবির আলোয়

প্রকাশিত: ১২:১৮ অপরাহ্ন, মে ৮, ২০২০

আজ পঁচিশে বৈশাখ। রবির আলোয় কাটবে আঁধার। বাঙালির আত্মার মুক্তি ও সার্বিক স্বনির্ভরতার প্রতীক কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১২৬৮ বঙ্গাব্দের এই দিনে কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন উদার বিশ্ববোধের এ কবি। প্রথম নোবেল বিজয়ী বাঙালি কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাবা ছিলেন ব্রাহ্ম ধর্মগুরু দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর, মাতা সারদাসুন্দরী দেবী। রবি ছিলেন তাদের চতুর্দশ সন্তান।

রবীন্দ্রনাথ সারাজীবন কোটি কোটি বাঙালির স্বপ্ন আর হৃদয়ের আবেগ স্পন্দিত করে তুলেছেন তার বিপুল সাহিত্যকর্মে। যার সৃষ্টিতে ঠাঁই পেয়েছে প্রেম-বিরহ-প্রকৃতি-সংগ্রাম-মানুষের জীবনের খুঁটিনাটি সব বিষয়। তাই বাঙালির মন-মনন, চিন্তা-অভিব্যক্তিজুড়ে আছেন তিনি। হয়ে উঠেছেন প্রাণের মানুষ, বাঙালির জীবনে অপরিহার্য ও অবিচ্ছেদ্য এক অংশে। রবির আলোয় আলোকিত শুধু বাংলাদেশ নয়, সমগ্র বিশ্ব। ভৌগোলিক সীমা ছাড়িয়ে তার সৃষ্টি জায়গা করে নিয়েছে বিশ্বদরবারে।

বর্তমান করোনা ভাইরাস সংক্রমণজনিত কারণে জনসমাগম এড়িয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী উদযাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। সে অনুযায়ী, ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচারের জন্য আনুমানিক ৫৫ মিনিটের একটি অনুষ্ঠান প্রস্তুত করা হয়েছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর বাণীও প্রচার করা হবে। অনুষ্ঠানটি আজ সকাল ১০টায় সম্প্রচার করা হবে বিটিভিসহ দেশের সব বেসরকারি টিভি চ্যানেলে। এ ছাড়া মহামারীর এ দুর্দিনে কবিগুরুকে

সহযাত্রী করে ছায়ানট অগ্রসর হচ্ছে নবীন মানব অভ্যুয়ের শুভক্ষণের অভিমুখে। রবীন্দ্রজয়ন্তীর দিন সকাল সাড়ে ৯টায় ‘ওই মহামানব আসে’ শীর্ষক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে তারা। তবে বৈশ্বিক করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে সেটি প্রতিষ্ঠানের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করা হবে। এ আয়োজনের গ্রন্থনা করেছেন ছায়ানট সভাপতি সন্জীদা খাতুন।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনের ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টার (আইজিসিসি)। করোনার কারণে এ আয়োজনটিও আইজিসিসির ফেসবুক পেজে  সম্প্রচার করা হবে। ‘ট্রিবিউট টু রবীন্দ্রনাথ ট্যাগোর: এ রে অব হোপ থট ট্যাগোরস ফিলোসফি’ শীর্ষক আলোচনায় অতিথি হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ; শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিদ্যুৎ চক্রবর্তী; বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক ও অনুবাদক অধ্যাপক ফখরুল আলম এবং ভারতের অনুবাদক ও গবেষক অধ্যাপক রাধা চক্রবর্তী। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত থাকবেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনসের (আইসিসিআর) সভাপতি ড. বিনয় সহস্রবুদ্ধি। শুরুতে স্বগত বক্তব্য দেবেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার ড. রীভা গাঙ্গুলী দাশ।